আজ ২৫শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৯ই জুলাই, ২০২০ ইং

ফেসবুকে আসছে নানা পরিবর্তন,থাকছে না কোন গ্রুপ চ্যাট।

ফেসবুকে গ্রুপের জন্য প্রাইভেসি সেটিংস হালনাগাদ করেছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। ফেসবুকের গ্রুপ ফিচারটি কীভাবে কাজ করে, তা সহজবোধ্য করতেই এ হালনাগাদ আনার কথা বলছে তারা। এখন ফেসবুক গ্রুপ হিসেবে ‘পাবলিক’, ‘ক্লোজড’ বা ‘সিক্রেট’ এমন নানা ভাগে ভাগ থাকবে না। এখন থেকে গ্রুপ হবে শুধু ‘পাবলিক’ ও ‘প্রাইভেট’।

ফেসবুক কর্তৃপক্ষ বলছে, ব্যবহারকারীদের প্রত্যাশার সঙ্গে খাপ খাওয়াতে ও বিষয়টিকে আরও পরিষ্কারভাবে তুলে ধরতে এ পরিবর্তন আনা হচ্ছে। এখানে গ্রুপের ব্যবস্থাপকেরা তাঁদের গ্রুপ কীভাবে দেখাতে চান, তার অপশন তাঁদের হাতে থাকবে।

এখন থেকে ফেসবুকের সব গ্রুপ তাদের বিশেষ শনাক্তকরণ প্রযুক্তির আওতায় থাকবে। প্রতিটি গ্রুপ পর্যবেক্ষণ করবে ফেসবুকের টিম। বাজে কনটেন্ট ও গ্রুপে বাজে প্রকাশকদের শনাক্ত করে ব্যবস্থাও নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে ফেসবুক।

ফেসবুক গ্রুপের পণ্য ব্যবস্থাপক জর্ডান ডেভিস বলেন, চলতি বছরের শুরুতে ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী মার্ক জাকারবার্গ বলেছিলেন সামাজিক যোগাযোগের সাইট টাউন স্কয়ার বা ঘরের ডিজিটাল সংস্করণের মতো। মানুষের সঙ্গে জনসমক্ষে আলাপচারিতার পাশাপাশি ব্যক্তিগত ও অন্তরঙ্গ আলাপের জায়গার প্রয়োজন পড়ে। এখন মানুষের কথা ভেবে গ্রুপের সহজ প্রাইভেসি মডেল চালু করা হচ্ছে। গ্রুপের প্রাইভেসি সেটিংস নিয়ে মানুষের মতামত নেওয়া হয়েছিল। ‘পাবলিক’ ও ‘প্রাইভেট’ এ দুটি গ্রুপের সদস্য হয়ে এখানকার পোস্টগুলো দেখতে সুবিধা হবে।

আগে যেসব গ্রুপ ‘ক্লোজড’ ছিল, তা এখন ‘প্রাইভেট’ গ্রুপ হয়ে যাবে এবং সার্চে দেখা যাবে। তবে আগের ‘সিক্রেট’ গ্রুপগুলো এখন ‘প্রাইভেট’ গ্রুপ হলেও তা সার্চে দেখা যাবে না।

গত বছর থেকেই ফেসবুক থেকে তথ্য ফাঁসসহ ভুয়া খবর ছড়ানো নিয়ে সমালোচনার মুখে পড়েন জাকারবার্গ। এ বছরের শুরুতেই তিনি ফেসবুকের ব্যবসার বেশ কিছু নতুন পরিকল্পনা প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, ভবিষ্যৎ হচ্ছে ‘প্রাইভেট’ বা একান্ত ব্যক্তিগত যোগাযোগের বিষয়টি। তিনি এ ধরনের যোগাযোগকে আরও নিরাপদ করতে চান।

প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট সোশ্যাল মিডিয়া টুডের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত বছরের অক্টোবরে চালু করা গ্রুপ চ্যাটের বিশেষ ফাংশন তারা সরিয়ে ফেলছে। পোস্টের মন্তব্যের বাইরে গ্রুপের সদস্যদের মধ্যে একান্ত আলাপচারিতা সুযোগ দিতে এ সুবিধা চালু করা হয়েছিল। এ অপশন বন্ধ করার পরিষ্কার কোনো ব্যাখ্যা ফেসবুক দেয়নি। তাদের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ১৬ আগস্ট থেকে ফেসবুক গ্রুপে নতুন চ্যাট অপশন থাকবে না। ২২ আগস্ট থেকে ফেসবুক গ্রুপের বর্তমান চ্যাটগুলো শুধু পড়া যাবে। বর্তমানে সরাসরি ফেসবুক অ্যাপের পণ্য অবকাঠামোতে গ্রুপ চ্যাট সমর্থন করে না। তবে গ্রুপে রিয়েল টাইমে যোগাযোগের জন্য নতুন উপায় খুঁজে দেখা হচ্ছে।

প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট টেক ক্রাঞ্চ বলছে, গ্রুপ চ্যাটে স্প্যাম ছড়ানো বেড়ে যাওয়ার কারণে ফেসবুক এ সিদ্ধান্ত নিতে পারে। বর্তমানে গ্রুপ চ্যাটে একসঙ্গে ২৫০ জনকে যুক্ত করা যাবে। এসব সদস্য বন্ধু না হলেও চলে। অর্থাৎ যেকেউ চাইলে তার নেটওয়ার্কের বাইরেও ২৫০ জনের কাছে বার্তা পাঠাতে পারে। অপরিচিত কারও কাছ থেকে এমন বার্তা পেয়ে অনেকে বিরক্ত হন। তাই ফেসবুক গ্রুপে নানা পরিবর্তন আনছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ জাতীয় আরও খবর

juboraj.com